Home » Top 10 » কেউ জাতীয় পার্টির প্রতি সুবিচার করেনি: এরশাদ

কেউ জাতীয় পার্টির প্রতি সুবিচার করেনি: এরশাদ

আওয়ামী লীগ তিনবার জাতীয় পার্টির সহযোগিতায় ক্ষমতায় আসলেও কেউ দলটির প্রতি সুবিচার করেনি বলে অভিযোগ করেছেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। গতকাল সোমবার জাতীয় পার্টির ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকার রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আয়োজিত এক সমাবেশে বিএনপির সঙ্গে আওয়ামী লীগকেও একই দোষে দোষী করেন দলটির চেয়ারম্যান। এরশাদ বলেন, আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করলেও কেউ সদয় ছিল না। তারা প্রায়ই ভুলে যায় আমাদের সমর্থনের কথা। তিনি বলেন, ১৯৯৬-এর নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে সমর্থন করলাম। কী পেলাম? তখন আমার দল ভাঙার চেষ্টা করা হলো, আমার ১৪ জন এমপিকে কিনে নেয়া হলো।

আমাকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করা হলো। এরপর ২০০১-এর নির্বাচনে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা সব বিএনপিকে ভোট দিলো। নেগেটিভ ভোর্টিংয়ে বিএনপি জিতে সরকার গঠন করলো। আমার কোনো দোষ নেই। এরপর ২০০৮ সালের নির্বাচনে আমাদের দেয়ার কথা ছিল ৪৮টি আসন। কিন্তু নির্বাচনে এই ৪৮টি আসনের মধ্যে ১৭টিতে তারা প্রার্থী ঘোষণা করলো। আমরা পেলাম ২৭টি আসন আর বিএনপি ২৯টি আসন। মাত্র দুটি আসন বেশি পেয়ে বিএনপি বিরোধী দল হয়ে গেল। বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে এরশাদ বলেন, নূর হোসেনের মৃত্যুর জন্য আমাকে দায়ী করা হয়। অথচ তাকে গুলি করা হয়েছে পেছন থেকে। বেগম জিয়া যে কানসাটে গুলি করে ১১ জন কৃষককে মেরে ফেললেন, সে কথা কেউ বলে না। আমাকে জেলে দিয়েছিলেন, আমার স্ত্রী-পুত্রকে জেলে পাঠিয়েছিলেন। আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা দিয়েছিলেন। আজকে আপনারা জেলের সামনে, আপনাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা চলছে। একে বলে আল্লাহর বিচার। জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি ইজ বিগ ফ্যাক্টর ইন পলিটিক্স। আমাদের ছাড়া আগামী নির্বাচন হবে না। আমাদের সামনে যে সুযোগ আছে তা হারানো যাবে না। সংগ্রাম করতে হবে। বিজয় ছিনিয়ে আনতে হবে। ৩২ বছর পেরিয়ে আসা জাতীয় পার্টি এখন পূর্ণ যৌবন অতিক্রম করছে। 
সমাবেশে জাতীয় পার্টির জ্যেষ্ঠ কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, মুজিবুল হক চুন্নু, কাজী ফিরোজ রশীদ, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এসএম ফয়সল চিশতী, সোলায়মান আলম শেঠ, নির্বাহী কমিটির নেতা নাসিরউদ্দিন মামুন, আশরাফুজ্জামান খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *