Home » Top 10 » ডিএনসিসি নির্বাচন, আগাম প্রচার থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ

ডিএনসিসি নির্বাচন, আগাম প্রচার থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচনকে সামনে রেখে আগাম প্রচার সামগ্রী নির্ধারিত সময়ে না সরালেও কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছে না নির্বাচন কমিশন। তবে বৃহস্পতিবার থেকে আচরণবিধি প্রতিপালন হচ্ছে কিনা তা তদারকিতে নামানো হচ্ছে নির্বাহী হাকিমদের। বুধবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা  মো. আবুল কাসেম বলেন, সম্ভাব্য প্রার্থীদের অনেকেই এখনো প্রচার সামগ্রী  নিজ উদ্যোগে সরিয়ে ফেলেননি ও অনেকে গণসংযোগ চালাচ্ছেন। তারা হয়তো অজ্ঞাতবশত তা করছে। আমি বলবো- আপনারা এ কাজ থেকে বিরত থাকুন। ইসি’র এ যুগ্ম সচিব (চলতি দায়িত্ব) জানান, নির্বাচনী আইনবিধি অনুযায়ী প্রতীক বরাদ্দের আগে কোনো ধরনের প্রচারণার সুযোগ নেই।

বৃহস্পতিবার থেকে আচরণবিধি প্রতিপালন তদারকির জন্য নির্বাহী হাকিম নিয়োজিত করা হচ্ছে। প্রয়াত আনিসুল হকের উত্তরসূরি নির্বাচনে আগামী ২৬শে ফেব্রুয়ারি ভোট দেবেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের  ভোটাররা। মঙ্গলবার ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, এই উপনির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হতে আবেদন জমা দেয়া যাবে আগামী ১৮ই জানুয়ারি পর্যন্ত। তা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৯শে জানুয়ারি। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ২১ ও ২২শে জানুয়ারি। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের নবগঠিত ৩৬ ওয়ার্ডেও কাউন্সিলর পদে ভোট হবে ২৬শে  ফেব্রুয়ারি। এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দিয়ে ৬ই জানুয়ারির মধ্যে আগাম প্রচার সামগ্রী অপসারণের নির্দেশ দিয়েছিল ইসি। নির্ধারিত সময় পার হলেও কোনো ব্যবস্থা না নেয়ার বিষয়ে আগারগাঁওস্থ কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম বলেন, মাত্র তফসিল ঘোষণা হলো। অনেক জায়গায় আগাম প্রচার সামগ্রী সরিয়ে নিয়েছে; কোথাও কোথাও  রয়ে গেছে। এ বিষয়গুলো কমিশনের নজরে আনা হবে। নির্বাহী হাকিম মাঠে নামলেই তারা আইনবিধি মেনে ব্যবস্থা  নেবেন। ঢাকা উত্তরের ৫৪টি ওয়ার্ডে ১৮ জন নির্বাহী হাকিম তদারকিতে নামবেন বলে জানান ইসি কর্মকর্তারা। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *