Home » Top 10 » ‘বিএনপির সঙ্গে সংলাপের প্রয়োজন নেই’

‘বিএনপির সঙ্গে সংলাপের প্রয়োজন নেই’

সংকটকালীন পরিস্থিতিতে সংলাপের প্রয়োজন হয়। কিন্তু এমন কোনো পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি যে বিএনপির সঙ্গে আগামী নির্বাচনের আগে সংলাপে বসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আজ বিকালে ধানমণ্ডির দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি  এ মন্তব্য করেন। 
ওবায়দুল কাদের বলেন, সংলাপ কেন হবে না, প্রয়োজন হলে হবে। কিন্তু এখন নির্বাচনের ব্যাপারে সংলাপের প্রয়োজনীয়তা দেখছি না। নির্বাচনের জন্য সংবিধানে যে পথ রয়েছে, সেই অনুযায়ী নির্বাচন হবে।

সেই পথ নিয়ে সংলাপ করতে হবে কেন?
২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংলাপের জন্য খালেদা জিয়াকে গণভবনে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি যাননি। এছাড়া খালেদা জিয়ার ছেলে কোকো মারা যাওয়ার তাদের বাড়ির সামনে গিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। কিন্তু দরজা বন্ধ রেখে তাকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।
এসব প্রসঙ্গ টেনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, সংলাপের পরিবেশ বিএনপিই রাখেনি। সেদিন প্রধানমন্ত্রীকে নোংরা ভাষায় অসৌজন্যমূলক কথা বলেছেন খালেদা জিয়া, মনে আছে? সেদিন প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে খালেদা জিয়া গণভবনে এলে গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক চেহারাটা অন্যরকম হতো। সংলাপের পরিবেশ তারাই নষ্ট করলেন। পুত্রহারা মাকে দেখার জন্য প্রধানমন্ত্রী যাওয়ার পর ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে সংলাপের দরজা বন্ধ করে দিলেন তিনি। বিএনপি সংলাপের কথা যতই বলে, এটা তাদের রাজনৈতিক স্ট্যান্টবাজি। সংলাপের মানসিকতা তাদের মধ্যে নেই। তারা সংলাপ চায় না। সংলাপের ইচ্ছা থাকলে নোংরা ভাষায় সংলাপের আহ্বান প্রত্যাখান করতো না তারা।
দ্বিতীয় মেয়াদে বর্তমান সরকারের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভাষণের সমালোচনা করে আজ দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিকেলে তারই জবাব দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।
আগামী নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, অংশ না নিলে আবারো মহাভুল করবে দলটি। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *