Home » Top 10 » হেফাজতি কেন্দ্র থেকে পালালো ৮ কিশোরী

হেফাজতি কেন্দ্র থেকে পালালো ৮ কিশোরী

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ফরহাদাবাদ ইউনিয়নে সমাজসেবা অধিদপ্তর পরিচালিত নিরাপদ হেফাজতি কেন্দ্র থেকে ৭ কিশোরী ও এক তরুণী পালিয়ে গেছে। বুধবার রাতে রান্নাঘরের জানালার গ্রিল ভেঙে তারা পালিয়ে যায়। পরে পালিয়ে যাওয়া সুমাইয়া (১৯) নামের এক তরুণীকে স্থানীয় লোকজন নিকটস্থ একটি বাজার থেকে আটক করে কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের নিকট হস্তান্তর করেছে। পালিয়ে যাওয়া অপর ৭ হেফাজতির মধ্যে লিজামনি ও আরিফা ইসলাম নামের ২ জনের নাম জানা গেছে।
হাটহাজারী উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী মো. ইলিয়াছ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নিরাপদ হেফাজত কেন্দ্রে বিভিন্ন অপরাধে এই ৭ কিশোরী ও এক তরুণী রাখা হয় আদালতের আদেশে। আর এই কেন্দ্রের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন ৭জন আনসার সদস্য। যাদের গাফিলতির কারনে এ ঘটনা ঘটেছে।

তিনি বলেন, হেফাজন কেন্দ্রে বুধবার রাত ২টা পর্যন্ত একজন আনসার সদস্য ডিউটিতে ছিলেন। ডিউটি শেষে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ২টা থেকে যে আনসার সদস্যের ডিউটি ছিল তিনি কর্মস্থলে অনুপস্থিত ছিলেন। এ সুযোগে হেফাজতিরা পালানোর সুযোগ পায়। 
তিনি জানান, হেফাজতি কেন্দ্রের রান্নাঘরের পেছনের জানালার লোহার গ্রিল মরিচা ধরে নড়বড়ে হয়ে যায়। এটি ধাক্কা দিলেই সহজে ভেঙে যায়। এ সুযোগটা কাজে লাগিয়ে পালিয়ে যায় বলে জানান জনতার হাতে আটক হেফাজতি তরুণী সুমাইয়া। 
হাটহাজারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর এ প্রসঙ্গে বলেন, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে তিনি বিষয়টি জানতে পেরেছেন। পালিয়ে যাওয়া হেফাজতি কিশোরীদের আটকের চেষ্টা চলেছে। 
তিনি বলেন, পালিয়ে যাওয়া হেফাজতিরা বিভিন্ন মামলার ভিকটিম। এদের সকলের বয়স ১২ থেকে ২০ বছরের মধ্যে। আজ বৃহ¯পতিবার সকালে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তাদের কাউকে আটক করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। তবে বিষয়টি কর্তৃপক্ষ আদালতে অবগত করেছে। আদালতের নির্দেশক্রমে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *