Home » স্বাস্থ্য » খাবারের গুণাগুণ » গরুর মাংসের চেয়ে ক্ষতিকর নারকেলের তেল!

গরুর মাংসের চেয়ে ক্ষতিকর নারকেলের তেল!

গরুর মাংস বা চর্বির চেয়ে ক্ষতিকর নারকেলের তেল। যুক্তরাষ্ট্রে একদল বিশেষজ্ঞ এমন দাবি করেছেন। সাধারণত মানুষের জন্য সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচনা করা হয় নারকেলের তেল। এক সময় মনে করা হতো এতে রয়েছে শতকরা ৯০ ভাগ স্যাচুরেটেড ফ্যাট। এতে নারকেলের তেলকে কলঙ্কিত করা হয়েছিল। কিন্তু তা থেকে সাম্প্রতিক সময়ে একটি আদর্শ তেলের খ্যাতি পেয়েছে এটা। কিন্তু এমন ধারণার বিরোধী আমেরিকান হার্ট এসোসিয়েশন (এএইচএ)। তারা বলেছে, নারকেলের তেল স্বাস্থ্যের জন্য উপকারীÑ এটা কোনো গবেষণাই সমর্থন করে না। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের হার্ট বিশেষজ্ঞরা নারকেলের তেলকে গরুর চর্বির চেয়ে অস্বাস্থ্যকর হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। তারা বলছেন, নারকেল তেলে থাকে অনেক বেশি স্যাচুরেটেড ফ্যাট, যা থেকে খারাপ কোলেস্টেরল বাড়িয়ে দিতে পারে। এএইটএ বলছে, এখন নারকেলের তেলে স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে শতকরা ৮২ ভাগ। বাটার বা মাখনের চেয়ে এ পরিমাণ বেশি। মাখনে এই ফ্যাট বা চর্বি থাকে শতকরা ৬৩ ভাগ। গরুর চর্বিতে থাকে শতকরা ৫০ ভাগ। গবেষণায় দেখা গেছে, অন্য স্যাটুরেটেড ফ্যাটের মতো নারকেলের তেল বাড়িয়ে দিতে পারে খারাপ কোলেস্টেরল। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ইউএসএ টুডে। এতে বলা হয়েছে, অনেকেই মনে করে থাকেন নারকেলের তেলে যে ফ্যাট বা চর্বির মিশ্রণ আছে তা স্বাস্থ্যের জন্য উপযোগী। কিন্তু এএইচএ বলছে, এর পক্ষে পর্যাপ্ত মানসম্পন্ন প্রমাণ নেই। তাই তারা বলছে, লোকজনের উচিত কি পরিমাণ স্যাচুরেটেড ফ্যাট খাচ্ছে তা কমিয়ে আনা। এক্ষেত্রে তারা নারকেলের তেল পাল্টে ভেজিটেবল তেলÑ যেমন অলিভ ওয়েল, সূর্যমুখীর তেল ব্যবহারে পরামর্শ দিয়েছেন। বলা হয়েছে, এতে শরীরে কোলেস্টেরলের পরিমাণ কম হবে। এইচএ’র এ বিষয়ক রিপোর্টের প্রধান লেখক ডা. ফ্রাঙ্ক স্যাকস বলেন, আমরা লোকজনকে হার্টের সমস্যা ও রক্তে ক্ষতিকর বিষয়গুলো প্রতিরোধের পরামর্শ দিই। বৃটেনে পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ড জনসাধারণকে পরামর্শ দিচ্ছে স্যাচুরেটেড ফ্যাট কমিয়ে আনতে। তাতে বলা হচ্ছে, দিনে একজন পুরুষকে গড়ে ৩০ গ্রামের বেশি স্যাচুরেটেড ফ্যাট গ্রহণ করা উচিত নয়। এক্ষেত্রে একজন নারীর জন্য মাত্রা ২০ গ্রাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *