Home » বিনোদন » ঢালিউড » ‘আমার শুরুর দিকের আর এখনকার সময়ে অনেক পার্থক্য দেখছি’

‘আমার শুরুর দিকের আর এখনকার সময়ে অনেক পার্থক্য দেখছি’

টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানভীন সুইটি। ১৯৯৫ সাল থেকে অভিনয় করছেন। অনেক দর্শকপ্রিয় নাটক এ পর্যন্ত দর্শকদের উপহার দিয়েছেন এ অভিনেত্রী। অভিনয়ের পাশাপাশি সামাজিক নানা কার্যক্রমেও নিয়মিত অংশ নিয়ে থাকেন সুইটি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেলিব্রেটিদের দেশ ও সমাজের প্রতি অনেক দায়িত্ব থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে আমি ইয়ূথ কালচারাল ফোরামের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে অটিজম সচেতনতা, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ বিতরণসহ বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমে অংশ নিয়েছি। দেশ ও সমাজের প্রতি একজন শিল্পীর দায়বদ্ধতা কেমন মনে করেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ তারকাদের সব সময় অনুসরণ করে। বিশেষ করে প্রিয় তারকার কর্মকান্ডে উৎসাহিত হয়ে অনেকে সেই কাজটি করার ইচ্ছে পোষণ করে। আমি মনে করি সমাজ পরিবর্তন ও দেশের উন্নয়নে তারকাদের এভাবে এগিয়ে আসা উচিৎ। বিশ্বের অনেক তারকাই সামাজিক কার্যক্রমে সাধারণ মানুষদের প্রেরণা দিচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, আজকাল শিশু ও তরুণ-তরুণীরা অনেকে ভুল পথে চলে যাচ্ছে। প্রযুক্তির অপব্যবহার করছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য মা-বাবাদের সচেতন হতে হবে। মা-বাবার কাছে শিশুরা প্রথম শিক্ষা নেয়। কিন্তু এখন দেখা যায় ছোট ছোট শিশুদের হাতে অনেক মা-বাবা এন্ড্রয়েড মোবাইল ফোন দিয়ে থাকেন। যার কারণে তারা পারস্পরিক সর্ম্পক থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে। পারস্পরিক সম্পর্ক থেকে শিশুরা যেন বাদ না পড়ে তার জন্য মা-বাবাদের দৃষ্টি রাখতে হবে। এদিকে সুইটি বর্তমানে অভিনয় শিল্পী সংঘের সহ-সভাপতি পদেও দায়িত্ব পালন করছেন। এ সংগঠনের কার্যক্রম কেমন চলছে জানতে চাইলে এই অভিনেত্রী বলেন, আগামীকাল থেকে শিল্পীদের আইডি কার্ড দেয়া হবে। এছাড়া শিল্পীদের জন্য একটি ফাউন্ডেশন করা হয়েছে। অনেক শিল্পীর বিভিন্ন সমস্যায় অর্থের প্রয়োজন হয়। তাদের সেই সময়ে এই তহবিল থেকে সহযোগিতা করা হবে। শিল্পীদের জন্য একটি নীতিমালাও তৈরি করা হয়েছে। সিডিউল অনূযায়ী প্রত্যেক শিল্পী যেন শুটিং স্পটে উপস্থিত থাকে। এদিকে আমরা সরকারের সঙ্গে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা চাই শিল্পীদের জন্য একটি ভাতার ব্যবস্থা করতে। আমাদের এই সংগঠনটি শিল্পীদের স্বার্থে কাজ করছে। আগামীতেও শিল্পীদের জন্য কাজ করবে অভিনয় শিল্পী সংঘ। সংগঠন ও সামাজিক কার্যক্রমের বাইরে অভিনয়ে সুইটির ব্যস্ততা কেমন? এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ব্যক্তিগত কারণে মাঝে কিছুদিন অভিনয় করিনি। সেজন্য অনেক নির্মাতাই জানে আমি অভিনয় করছিনা। তবে আমি আবার অভিনয়ে ফিরেছি। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে ধারাবাহিক ও খন্ড নাটকে কাজ করছি। আর তা নিয়মিত করবোও। সুইটি অভিনীত বাংলাভিশনে ‘হাউসওয়াইফ’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। দূরন্ত টিভির জন্য ‘ব-তে বন্ধু’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিকের কাজও করছেন তিনি। এটি পরিচালনা করছেন যুবরাজ। খুব শিগগির বাংলাভিশনের জন্য আরো একটি ধারাবহিক নাটকের কাজ শুরু করবেন বলে জানান তিনি। টিভি মিডিয়ায় সুইটির কাজের অভিজ্ঞতা দীর্ঘদিনের। সেই অভিজ্ঞতার আলোকে বর্তমানে এ মাধ্যমটিতে কাজের পরিবেশ কেমন মনে হচ্ছে প্রশ্ন করা হলে সুইটি বলেন, আমার শুরুর দিকের আর এখনকার সময়ে অনেক পার্থক্য দেখছি টিভি মিডিয়ায়। আমাদের সেই সময়ে সবার মধ্যে সুদৃঢ় বন্ধন ছিলো। কাজের মধ্য দিয়ে একে অপরের সঙ্গে বন্ধুত্বের সর্ম্পক গড়তো। কিন্তু এখন এই বিষয়গুলো অনেক কমে গেছে। সবাই  নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। আমি মনে করি শিল্পীদের মধ্যে সু-সর্ম্পক থাকা প্রয়োজন। একে অপরের সমস্যায় এগিয়ে আসবে। কারণ আমরা সবাই একই পরিবারের সদস্য। আমাদেরকে একে অপরের সঙ্গেই কাজ করতে হয়। টিভি নাটকের বাইরে মঞ্চ নাটকেও অভিনয় করেন সুইটি। আগামীকাল থিয়েটার বেইলি রোডের প্রযোজনায় শিল্পকলা একাডেমির এক্সপেরিমেন্টাল হলে গঙ্গা-যমুনা নাট্য ও সংস্কৃতিক উৎসবে ‘মুক্তি’ শিরোনামের একটি মঞ্চ নাটকে তাকে দেখা যাবে। এটি নিদের্শনায় রয়েছেন ত্রপা মজুমদার। সুইটি ছাড়াও এই নাটকে ফেরদৌসি মজুমদার, আনজুম আরা পল্লি ও তামানা ইসলাম অভিনয় করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *