Home » শিক্ষা » কলেজ » রমজানের ১৫ দিন মাধ্যমিক ও ১০ দিন খোলা থাকবে প্রাথমিক বিদ্যালয়

রমজানের ১৫ দিন মাধ্যমিক ও ১০ দিন খোলা থাকবে প্রাথমিক বিদ্যালয়

দেশের মাধ্যমিক থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছুটির তালিকা সংশোধন করা হয়েছে। পবিত্র রমজানের প্রথম ১৫ দিন ক্লাস চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আর রমজানের প্রথম ১০ দিন খোলা থাকবে প্রাথমিক বিদ্যালয়। গতকাল পৃথক বার্তায় বিষয়টি জানায় শিক্ষার দায়িত্বে থাকা দুই মন্ত্রণালয়।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো বার্তায় বলা হয়, সরকারি/বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়সমূহের ২০২৪ সালের শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকা ও শিক্ষাপঞ্জি আংশিক সংশোধন করা হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১১ই মার্চ থেকে ২৫শে মার্চ পর্যন্ত মোট ১৫ দিন সরকারি/বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়সমূহের শ্রেণি কার্যক্রম চালু থাকবে।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিভাগ থেকে পাঠানো আরেক বার্তায় বলা হয়, শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি পূরণকল্পে ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকা ও শিক্ষাপঞ্জি আংশিক সংশোধন করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সিদ্ধান্ত মোতাবেক আসন্ন পবিত্র রমজান মাসের প্রথম ১০ দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে নিয়মিত পাঠদান কার্যক্রম চালু থাকবে।
উল্লেখ্য, ২০২৪ সালে দেশের সরকারি ও বেসরকারি কলেজের ছুটির তালিকা অনুমোদন করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রতিষ্ঠান প্রধানের তিন দিনের সংরক্ষিত ছুটিসহ বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে মোট ৭১ দিন বন্ধ থাকবে এসব প্রতিষ্ঠান। জাতীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ দিবস ২১শে ফেব্রুয়ারি, ১৭ই মার্চ, ২৬শে মার্চ, ১৫ই আগস্ট ও ১৬ই ডিসেম্বর ক্লাস বন্ধ থাকবে। তবে সংশ্লিষ্ট দিবসের বিষয়ভিত্তিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে দিবসটি উদ্‌যাপন করতে হবে বলেও এতে বলা হয়। ছুটির তালিকা অনুযায়ী, পবিত্র রমজান, ঈদুল ফিতর, গ্রীষ্মকালীন অবকাশ, জাতীয় শিশু দিবস, স্বাধীনতা দিবস, ইস্টার সানডেসহ বেশ কয়েকটি সরকারি ছুটির সমন্বয়ে টানা ৩০ দিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি থাকবে।
এ ছুটি শুরু হবে ১০ই মার্চ থেকে। চলবে ১৮ই এপ্রিল পর্যন্ত। ঈদুল আজহা উপলক্ষে সাত দিন এবং দুর্গাপূজা ও ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম উপলক্ষে সাত দিনের ছুটি থাকবে। তাছাড়া বছরের শেষে ১৭ই ডিসেম্বর থেকে শীতকালীন ও বড়দিন উপলক্ষে ১১ দিনের ছুটি চলবে ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত।
আর প্রাথমিকের ছুটির তালিকায় বলা হয়, গ্রীষ্মকালীন অবকাশ ও পবিত্র ঈদুল আজহায় ১৩ থেকে ২৩শে জুন ৭দিন ছুটি থাকবে। এ ছাড়া পবিত্র রমজানসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস, দোলযাত্রা, স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস, ইস্টার সানডে, জুমাতুল বিদা, হরিচাঁদ ঠাকুরের আবির্ভাব, শবেকদর, ঈদুল ফিতর, বৈসাবি, চৈত্র সংক্রান্তি ও বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ১২ই মার্চ থেকে ১৪ই এপ্রিল পর্যন্ত ২১ দিন ছুটি থাকবে। এ ছাড়া দুর্গাপূজা, ফাতেহা ইয়াজদাহম, লক্ষ্মীপূজা ও প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ১১ থেকে ১৭ই অক্টোবর ৫ দিন, শীতকালীন অবকাশ ও যিশু খ্রিস্টের জন্মদিন (বড়দিন) উপলক্ষে ১২ থেকে ২৮শে ডিসেম্বর ১০ দিন এবং প্রধান শিক্ষকের সংরক্ষিত ৩ দিনসহ মোট ৬০ দিন ছুটি থাকবে। এতে বলা হয়েছিল, চাঁদ দেখার ওপর ধর্মীয় উৎসবের ছুটি নির্ভর করবে। জাতীয় দিবসগুলো যথাযথ মর্যাদায় স্কুল পর্যায়ে পালন করতে হবে। প্রধান শিক্ষকের সংরক্ষিত ছুটি থানা/উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অনুমোদনক্রমে ভোগ করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *