Home » অন্যান্য » চেন্নাই দলে খেলা স্বপ্ন ছিল আমার: মোস্তাফিজুর রহমান

চেন্নাই দলে খেলা স্বপ্ন ছিল আমার: মোস্তাফিজুর রহমান

চলতি আইপিএলে এখন পর্যন্ত যৌথভাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি মোস্তাফিজুর রহমান। এই সাফল্যের পেছনে মাহেন্দ্র সিং ধোনি ও ডোয়াইন ব্রাভোর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংসের এই বাংলাদেশি পেসার। চেন্নাইয়ের হয়ে খেলা স্বপ্ন ছিল বলেও জানান মোস্তাফিজুর।
চলতি আসরে এখন পর্যন্ত ৭ ম্যাচ খেলে ১২ উইকেট মুস্তাফিজের। ওভারপ্রতি রান দিয়েছেন দশের বেশি। শুরুটা দুর্দান্ত হয় তার। কিন্তু সবশেষ তিন ম্যাচেই ভীষণ খরুচে ছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলে মুস্তাফিজের একটি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করে চেন্নাই। সেখানে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি।

২০১৬ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএলে অভিষেক হয় মোস্তাফিজের। এরপর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, দিল্লি ক্যাপিটালস, রাজস্থান রয়্যালসের হয়েও খেলেন তিনি।

তবে চেন্নাইয়ের হয়ে খেলা স্বপ্ন ছিল বলে জানান মোস্তাফিজ। তিনি বলেন, ‘চেন্নাই দলে এটা আমার প্রথমবার। যখন আমি খেলা শুরু করি, বিশেষ করে আইপিএলে ২০১৬ সালে যখন খেলি, তখন থেকে চেন্নাই দলে খেলা আমার স্বপ্ন ছিল। এবার যখন চেন্নাইয়ে সুযোগ পাওয়ার খবর পাই, ওই রাতে আমার ঘুম আসছিল না। আমার পরের দিন খেলা ছিল, আমি নিউ জিল্যান্ডে ছিলাম, রাতে আমি মনে হয় ঘণ্টাখানেকের মতো ঘুমিয়েছিলাম, এরপর থেকে দেখি শুধু ম্যাসেজ আসতেছে। সবাই অভিনন্দন জানাচ্ছিল, চেন্নাই দলে সুযোগ পাওয়ায়।’
ধোনি ও ব্রাভোর পরামর্শ নিয়ে মোস্তাফিজ বলেন, ‘জাতীয় দলে যেমন সবাই ফ্রেন্ডলি, এখানে এসেও আমার তেমন কোনো অস্বস্তি বোধ হয়নি। এটাই মনে হয় অনেক বড় দিক। মাহি (এমএস ধোনি) ভাই কিছু ফিল্ডিং সেট আপ, ব্রাভো ডেথ ওভারের কিছু ফিল্ডিং সেট আপের পরামর্শ দিয়েছে, এই ছোটছোট জিনিসগুলা খুব ভালো কাজে লেগেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বোলিং নিয়েই কথা হয় বেশি, এমনিতে বাইরে কম কথা হয়। মাঠেই কথা হয় টুকটাক, যে কোনটা করলে কী হয়। মাহি ভাই এসে আমারে বলে এটা করলে ভালো হতো।’

আইপিএলে ভালো করলে অন্য টুর্নামেন্টগুলোতে ভালো করা সহজ হয়ে যায় বলে মত মোস্তাফিজের। এই বাঁহাতি পেসার বলেন, ‘অন্য যেকোনো টুর্নামেন্টের থেকে আইপিএলে সব তারকারা থাকে, সব দেশের। এখানে যদি আমি সফল হই, অন্য জায়গায় সফল হওয়াটা সহজ হবে, আমার কাছে মনে হয়। বেশি ভালো লাগা কাজ করে যখন বড় দলের বিপক্ষে খেলি। আর বড় দলের বিপক্ষে যদি আপনি পারফর্ম করেন, সেটা সামনে আসবে বেশি। স্বাভাবিকভাবে আমার সবসময় বড় দলের বিপক্ষে খেলতে ভালো লাগে। দর্শক থাকে, সব কিছুই অন্যরকম।’

মোস্তাফিজ আরও বলেন, ‘যেকোনো স্পোর্টসে দেখবেন ভালোর শেষ নেই। যেটা পেছনে পড়ে গেছে সেটা চলে গেছে, সেটা আমি আর ফিরে পাবো না। আমি ওই ম্যাচে উইকেট পেয়েছিলাম, এটা দেখে বসে থাকলে হবে না। আমার সামনে আরও খেলা আছে, কী করলে আরও ভালো করতে পারি, সবসময় আমি এটাই ভাবি।’

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *