সর্বশেষ
Home » খেলা » ক্রিকেট » সূর্যকুমারের ক্যাচ নিয়ে প্রশ্ন – আইসিসি’র নিয়ম কী বলছে

সূর্যকুমারের ক্যাচ নিয়ে প্রশ্ন – আইসিসি’র নিয়ম কী বলছে

শিরোপার খুব কাছ থেকে ফিরে গেল প্রথমবার ফাইনালে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকা। অভিজ্ঞতা, ভাগ্য, পিচ সবকিছু যেন সহায়ক ছিল ভারতের জন্য। যে কারণে জিততে জিততে হেরে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু ম্যাচে একটা ক্যাচ নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। ওই ক্যাচ নিয়ে আলোচনায় এসেছে আইসিসির নিয়মও। ৬ বলে লাগে ১৬ রান, লংঅফে হার্দিক পান্ডিয়ার ফুলটস বল উড়িয়ে মারলেন ডেভিড মিলার। কিন্তু সেটা সীমানার কাছ থেকে তালুবন্দি করলেন সূর্যকুমার যাদব। এই ক্যাচ নিয়ে বিশ্বকাপটাই যেন হাতে নিয়ে নিলেন যাদব। টিভি রিভিউ দেখে আউট দেন রিচার্ড কেটলবরো।
ওই সময় মিলার আউট না হলে, সেটি ছয় বলে গণ্য হতো। ফলে ম্যাচের ফল ভিন্ন হলেও হতে পারত।
তাই ম্যাচের ফল নির্ধারণকারী মুহূর্ত নিয়ে কেন আম্পায়ার বাড়তি সময় নিলেন না, তা নিয়েই অনেকে প্রশ্ন তুলছেন। এ ছাড়া রিপ্লেতে সীমানা দড়িটিও কিছুটা সরে গেছে বলে দেখা যায়, কারণ ঘাসের ওপর বাউন্ডারি লাইনে সাদা দাগ স্পষ্ট। সেই দাগের ওপরই পা ছিল সূর্যকুমারের, যা সেই বিতর্ক আরও উসকে দিচ্ছে।
আইসিসির আইনে কী বলা আছে?
ক্রিকেটীয় আইনে সীমানা দড়ি সরে যাওয়া নিয়ে স্পষ্ট ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। সেই আইন তুলে ধরেছে ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট উইজডেন। তারা বলছে, আইসিসির প্লেয়িং কন্ডিশন অনুযায়ী ১৯.৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘সীমানা চিহ্নিত করতে ব্যবহৃত কোনো কঠিন বস্তু যদি কোনো কারণে বিঘ্নিত (সরে যায়) হয়, তাহলে সীমানাটি তার আসল অবস্থানে আছে বলে বিবেচিত হবে।’
১৯.৩.২ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘সীমানা চিহ্নিত করতে ব্যবহৃত কোনো কঠিন বস্তু যদি কোনো কারণে বিঘ্নিত (সরে যায়) হয়, তাহলে যত দ্রুত সম্ভব তা ঠিক করতে হবে। খেলা চলতে থাকলে বল ডেড হওয়ামাত্রই এ কাজ করতে হবে।’ এছাড়া সম্পূরক আইনে আরো বলা আছে, ‘সীমানা চিহ্নিত করার সাদা লাইনই আসল বাউন্ডারি হিসেবে চিহ্নিত হবে।’
ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন করা হলো, আরেকটু সময় নিয়ে রিপ্লে দেখতে পারতেন কি না তৃতীয় আম্পায়ার। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এইডেন মার্করাম বলেন, “সত্যি বলতে, আমি এটা এখনও দেখিনি। দেখতে পারিনি। হ্যাঁ, রিপ্লে একটু দ্রুতই হয়েছে। অবশ্যই তারা বেশ নিশ্চিতই ছিল যে এটা আউট এবং এই কারণেই রিপ্লে দ্রুত দেখেছে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *